Home আন্তর্জাতিক মার্শাল আর্ট ফাইটার আনছে চীন!

মার্শাল আর্ট ফাইটার আনছে চীন!

Dainik Khabor :-  কয়েকদিন ধরে চলতে থাকা চীন এবং ভারতীয় সেনাদের, মধ্যে একখণ্ড যুদ্ধের পরে।  পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক’ হলেও সীমান্তে এখনো পর্যন্ত উত্তেজনা রয়েছে, ভারত ভীষ্ম T90এর  মতো ট্যাঙ্ক নিয়ে গিয়েছে, এছাড়াও অস্ত্র-সরঞ্জাম নিয়ে গেছে লাদাখ কে চীন সীমান্তে। এদিকে ভারতকে আমেরিকা সেনা দিয়ে সাহায্যের কথা বলেছেন, এর জন্য আমেরিকা ইতিমধ্যেই ইউরোপ থেকে সেনা সরিয়ে  নিয়ে এশিয়ার সীমান্তবর্তী এলাকায় সেনা মোতায়েন করছে। এই পরিস্থিতিতে বিরাট চাপের সম্মুখীন হয়েছে, তাই এই পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য চীন এবার সীমান্তবর্তী এলাকায় মার্শাল আর্ট ফাইটার নিয়োগের চিন্তাভাবনা করছে।

চীন সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে যে চীন তাদের সীমান্তবর্তী স্থান কে মজবুত করার জন্য মার্শাল আর্ট জানা সেনা নিয়োগ করবে, এই খবরটি প্রকাশ করেন চিনা সেনা সংবাদ পত্রিকা। তবে বিভিন্ন কূটনৈতিক মহল মনে করছে যে গালওয়ান এর পর থেকেই চীন এই শিক্ষা নিয়ে হয়তো সীমান্তবর্তী এলাকায় মার্শাল আর্ট জানা ফাইটার আনছে। উল্লেখিত যে কিছুদিন আগেই গালওয়ানে চীন এবং ভারতের সেনাদের মধ্যে হাতাহাতি সৃষ্টি হয়, তাতে করে একখণ্ড যুদ্ধের তৈরি। আর এতে কর্নেল সন্তোষবাবু সহ কুড়ি ভারতীয় সেনা শহীদ হয়। ভিডিও মার্কিন রিপোর্টে জানা যায় যে চীনের ও কমপক্ষে ৩৫ জন সেনা শহীদ হয়েছেন।

তবে সীমান্তবর্তী স্থানে চীন কেন মার্শালাট ফাইটার আনছে? এর কারণ জানতে হলে ভারত ও চীনের স্বাক্ষরিত ১৯৯৬ এবং ২০০৬ সালের সীমান্ত প্রটোকল দেখতে হবে। সেই প্রটোকলে উল্লেখ ছিল সীমান্তের দুই কিলোমিটারের মধ্যে আগ্নেয়াস্ত্র ও বিস্ফোরক,  রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করতে পারবে না এই দুই দেশ। সেই কথা মত অস্ত্র ছাড়াই এই দুই দেশের মধ্যে, তাই চীন ভাবছে যে পাহাড়ি এলাকায় মার্শালাট যুক্ত সেনা নিয়োগ করলে তারা অনেকটাই সুবিধা পাবেন, সেই হিসেব মতোই তারা তাদের বিভিন্ন মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষণ কেন্দ্র গুলিতে খোজ চালাচ্ছেন।

তবে এই সংবাদটি বাইরে আসার পরেই বেজিং অস্বীকার করেন। যদিও অধিকৃত তিব্বতের রাজধানী থেকে প্রায় ১৩০০ কিলোমিটার দূরে পূর্ব লাদাখের অবস্থান। উঁচু পাহাড়ে ঘেরা দুর্গম সংঘাতের ক্ষেত্রগুলিতে বোঝানোর জন্যই ডাক পড়েছে পর্বতারোহীদের।

তবে বিভিন্ন কূটনৈতিক মহল থেকে শুরু করে রাজনৈতিক মহল মনে করছে যে চীনের এটি নতুন পরিকল্পনা, যেহেতু অস্ত্র চালানো নিষেধ সুতরাং তারা মার্শালাট প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের দিয়েই সীমান্ত মজবুত করতে চাচ্ছে। কিন্তু তাদের এই পরিকল্পনাটা কি সত্যিই বাস্তবায়িত হবে বলে মনে করছেন বিভিন্ন কূটনীতিক মহল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

শীর্ষ সংবাদ

- Advertisement -

অন্য রকম