Home আন্তর্জাতিক লাদাখ সীমান্তে সেনা বাড়িয়ে আনছে চীন

লাদাখ সীমান্তে সেনা বাড়িয়ে আনছে চীন

Dainik Khabor :-  গত মার্চ মাস থেকেই ভারত চীনের মধ্যে শুরু হয় এক খন্ডযুদ্ধের। এর মূল কারণ হলো লাদাখ সীমান্ত নিয়ে। চিন্ দাবি করে যে লাদাখ সীমান্ত তাদের, ভারত সেটি মানতে নারাজ। কারণ লাদাখ ভারতের অংশ। এই নিয়ে শুরু হয় দুই দেশের মধ্যে এক টানাপড়েন। এই অবস্থা কাটানোর জন্য দুই দেশেই সেনা নিয়োগ করে সীমান্তবর্তী স্থানে, কিন্তু চীন ভারতের কিছুটা অংশে প্রবেশ করা যায়, তাকে আটক করার জন্য ভারতের সেনা বাধা দেয়। এর ফলস্বরূপ প্রথম প্রথম দুই দেশের সেনাদের মধ্যে হাতাহাতি হল। পরবর্তীকালে সেটি ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করে। শুরু হয়ে যায় যুদ্ধের পরিস্থিতি। এবং একটা সময় ছুটি যুদ্ধের আকার ধারণ করে। এই যুদ্ধের ফলে ভারতীয় কুড়ি জন সেনা শহীদ হন। যদিও চীন দাবী করে যে তাদেরও অনেক কয়েকজন সেনা শহীদ হয়েছেন। তবে ভারত চীনের চুক্তি অনুযায়ী দুই দেশেই কোন অস্ত্রের ব্যবহার করেনি।

দুই দেশের দুই দেশের মধ্যে এই টানাপড়েন চলাকালীন, বিদেশি বিভিন্ন ভাবে আলোচনার চেষ্টা করে। রাশিয়া ও চায় এদের সঙ্গে সমঝোতায় আসার জন্য, কিন্তু তুই তো সেই রাশিয়াকে নাকচ করে দেয়। কারণ ভারত চীন চায়না যে তাদের সমস্যার মধ্যে কোন তৃতীয় দেশ হস্তক্ষেপ করুক। বিভিন্ন ভাবে চলতে থাকে আলোচনা। কূটনৈতিক রাজনৈতিক সবদিক দিয়ে আলোচনা হয়। কিন্তু আলোচনার মাধ্যমে কোনো কিছুরই অবসান হয়নি।

ভারতের লাদাখ সীমান্তে বাড়াতে থাকেআনছে সেনা। নিয়ে যেতে থাকে বিভিন্ন বিমান, যুদ্ধের ট্যাংকার। আমেরিকার মত দেশ ও সেনা পাঠানোর জন্য প্রস্তুত হয়ে ভারতকে,। রাশিয়া ইসরাইল ও ভারতের পাশে থাকার আশ্বাস জানায়। ফ্রান্স ও ভারতকে রাফায়েল যুদ্ধবিমান দিয়ে সাহায্যের কথা বলে।

ভারত চীনের মধ্যে তৃতীয় পর্যায়ের বৈঠক হলো সুরাহা মিলেনি। সংবাদমাধ্যম এনআইএ আজকে দাবি করেন যে এলএসসি বাড়াবার চীনা লাল ফৌজ নিয়োগ করা হয়েছে কুড়ি হাজারের মতো। আরো ১০হাজার সেনা গোছানো হচ্ছে। তারাও যুদ্ধে বিভিন্ন যন্ত্রপাতি নিয়ে অগ্রসর এর পথে। তবে যুদ্ধ কি আগ্রাসন হচ্ছে দিনের পর দিন। এই মনোভাব কে কোন দশেই মেনে নিচ্ছে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

শীর্ষ সংবাদ

- Advertisement -

অন্য রকম