দোকানের সামনে বাইক দাঁড় করানোর অপরাধে , তরুণ-তরুণীকে বেধড়ক মার সিভিকের

তরুণ-তরুণীকে বেধড়ক মার সিভিক ভলান্টিয়ার দের , বিভিন্ন মহলে উঠেছে প্রশ্ন ।

দোকানের সামনে বাইক দাঁড় করানোর অপরাধে , তরুণ-তরুণীকে বেধড়ক মার সিভিকের
সিভিক

ফের অভিযোগ উঠল  সিভিক ভলান্টিয়ারদের বিরুদ্ধে

গিয়েছিলেন বিয়ের কেনাকাটা করতে, বাইক রেখেছিলেন দোকানের সামনে। আর এই অপরাধেই শুধুমাত্র তরুণ নয়, তরুণীকেও মারধোরের অভিযোগ উঠল ডায়মন্ড হারবারে (diamond harbour) সিভিক ভলান্টিয়ারের (civic volunteer) বিরুদ্ধে। বেধড়ক মারধোর করা হয় দুজনকে।

সূত্রের খবর, আত্মীয় রিম্পা চক্রবর্তীকে নিয়ে বুধবার রাতে বিয়ের কেনাকাটা করতে বেরিয়েছিলেন বেহালার গোপাল মিশ্র রোডের বাসিন্দা অনীশ সাহা। কেনাকাটার প্রয়োজনে এদোকান সেদোকান ঘুরতেও হচ্ছিল তাঁদের। তাই একটি দোকানে কেনাকাটা করার জন্য ডায়মন্ড হারবারে স্টেশন রোডের একটি দোকানের সামনে বাইক দাঁড় করিয়ে রাখেন তাঁরা। আর এই দৃশ্যটাই এক সিভিক ভলান্টিয়ারের চোখে পড়ে যায়।

দোকানের সামনে কেন বাইক রাখা হয়েছে, এই বিষয়ে শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ। এবিষয়ে অনীশ ও রিম্পা জানিয়েছেন, ‘আমরা কেন ওভাবে দোকানের সামনে বাইক রেখেছি, তা জানতে চান সিভিক ভলিন্টিয়ার। বাইকটা ওখান থেকে সরিয়ে দেওয়ার কথা বললেও, আইনের প্রসঙ্গ তুলে আমাদের শাসাতে থাকেন ওই সিভিক ভলান্টিয়ার’।

তাঁরা আরও জানায়, ‘এরপর আমাদের সঙ্গে বচসা শুরু হয় ওই সিভিক ভলান্টিয়ারের। আর মুহূর্তেই সাত থেকে আটজন পুরুষ ও মহিলা সিভিক ভলান্টিয়ার সেখানে উপস্থিত হন। এরপর এখান থেকে আমাদের রীতিমত টানতে টানতে ট্রাফিক গার্ডের অফিসে নিয়ে এসে কিছু বলার সুযোগ না দিয়েই বেধড়ক মারধোর শুরু করে’।