fbpx
Friday, July 30, 2021
Homeমালদাটানা লোডশেডিং! মানুষ ক্ষিপ্ত হয়ে ভাঙলো মানিকচক বিদ্যুৎ অফিস

টানা লোডশেডিং! মানুষ ক্ষিপ্ত হয়ে ভাঙলো মানিকচক বিদ্যুৎ অফিস

মালদা, ৭অগাস্টঃ কয়েকদিন ধরে প্রায় অসহ্য কর গরম পড়াতে মানুষ জন যেন নাজেহাল হয়ে পড়েছে। আর এর মধ্যে গত বৃহস্পতিবার মানিকচক ব্লকের বিভিন্ন এলাকায় টানা কয়েক ঘন্টা লোডশেডিং থাকতে স্থানীয় বাসিন্দা বিক্ষোভ এ ফেটে পড়লেন। স্থানীয় বাসিন্দা টানা কয়েক ঘন্টা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকার কারণে মানিকচক বিদ্যুৎ অফিসে ব্যাপক ভাবে ভাঙচুর করে। টানা কয়েক ঘন্টা লোডশেডিং থাকার কারণে স্থানীয় বাসিন্দারা ভীষণ অসুবিধাতে পড়েন। তারা তাদের পরিবারের সদস্যা রা প্রায় অসুস্থ হয়ে পরে।

তাই গত বৃহস্পতিবার বিদ্যুৎ অফিসে কিছু জনতা রাত 10 টা নাগাদ এসে বিক্ষোভ করে বিদ্যুৎ পরিষেবা ঠিক করার জন্য। সেই প্রবল বিক্ষোভ এর কথা শুনে ঘটনাস্থলে মানিকচক থানার পুলিশ সেখানে এসে পৌঁছলো এবং সেই বাসিন্দা দের বুঝিয়ে তাদের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। কিন্তু পুলিশ সেই বিদ্যুৎ অফিস থেকে চলে যাওয়ার পর আবার প্রায় একশো জন বাসিন্দা ঘুরে আসে বিদ্যুৎ অফিসে এবং বিদ্যুৎ অফিসের সাপ্লাই রুমে ঢুকে ভাঙচুর করে। অফিসের প্রয়োজনীয় মেশিন , গাড়ি , আসবাবপত্র বিক্ষোভ কারী রা ভাঙচুর করে। ঘটনার ফলে বিদ্যুৎ অফিসের কর্মীরা শারীরিক ভাবে হেনস্থা হয় তারা কোনো রকমে পালিয়ে প্রাণে বাঁচে।

এই ঘটনার বিষয়ে বিদ্যুৎ অফিসের কিছু কর্মী জানান যে , জেলার মূল বিদ্যুৎ দপ্তর থেকে মানিকচক বিদ্যুৎ সংযোগ ব্রেক ডাউন ছিল তাই মানিকচক এলাকার বিদ্যুৎ লোডশেডিং ছিল। তারা বলেন তারা অনেক বার চেষ্টা করেছেন বিদ্যুৎ স্বাভাবিক করার। কিন্তু তারা জানতে পারে যে ৩৩ হাজার ভোল্ট তারের মধ্যে গাছ পরে রয়েছে তারা সেটা ঠিক করার চেষ্টা করেছিল। তারা বলেন কিন্তু পুলিশ বিদ্যুৎ অফিস থেকে যাওয়ার পর প্রায় ১০০ জন বাসিন্দা আবার অফিসে এসে তাদের শারীরিক হেনস্থা করে তারা কোনোরকম পালিয়ে প্রাণে বেঁচে যায়। কিন্তু স্থানীয় বাসিন্দারা অফিসে ঢুকে অফিসের মূল্যবান যন্ত্রপাতি , গাড়ি , মেশিন , বিভিন্ন ইলেকট্রিক মেশিন , গেট , জানালা , দরজা বিভিন্ন সামগ্রী ভাঙচুর করেন। অফিসের কর্মীরা জানান এই ঘটনার ফলে তারা নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছে তাদের প্রাণ সংশয় দেখা দিচ্ছে। তারা রাতে প্রায় সমস্ত এলাকার বিদ্যুৎ পরিষেবা ঠিক করেছেন। এই ঘটনার জন্য বিদ্যুৎ অফিস এর থেকে বিক্ষোভ কারীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন মানিকচক থানায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

শীর্ষ সংবাদ

অন্য রকম