দিদির খারাপ সময় এলেই দিল্লি যান - মুখ্যমন্ত্রীর দিল্লি সফরকে কটাক্ষ করলেন দিলীপ ঘোষ

হোম মিনিস্টারের বাড়ির সামনে বসে ওরা কীর্তন করছে, এটা আমাদের সঙ্গে সখ্যতা নয়। - তৃণমূলের ধর্না প্রসঙ্গে দিলিপ ঘোষ

দিদির খারাপ সময় এলেই দিল্লি যান  - মুখ্যমন্ত্রীর দিল্লি সফরকে কটাক্ষ করলেন দিলীপ ঘোষ

তৃণমূল নেত্রী সায়নী ঘোষকে গ্রেফতারের ঘটনা নিয়ে সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

শুধু তাই নয় তৃণমূল সাংসদরা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহের মন্ত্রক, নর্থ ব্লকে বিক্ষোভ দেখায়।

এই বিষয়ে বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ”হোম মিনিস্টারের বাড়ির সামনে বসে কীর্তন করছে, এটা আমাদের সঙ্গে সখ্যতা নয়। এখানে বিজেপি পার্টি অফিসের সামনেও এসেছিল। খবর দিয়ে এলে আমি চা খাওয়াতে পারতাম। কিন্তু খবর না দিয়ে আসার জন্য চা খাওয়াতে পারিনি। সৌজন্যবোধ আছে আমাদের।”

এরপরই বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ করে দিলীপ বলেন ”এখন দিদি দিল্লি গিয়েছেন। সময় খারাপ হলে অনেকের সঙ্গে কথা বলতে হয়। যখন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কিংবা প্রধানমন্ত্রী ডাকেন তখন যান না। যখন অর্থমন্ত্রী ডাকে তখন যান না। যখন ডিএম কিংবা চিফ সেক্রেটারিকে ডাকেন তখনও যান না।

এখন সংসার চলছে না। স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড নিয়ে মানুষ ঘুরে বেড়াচ্ছে। না ভর্তি হতে পারছে। না টাকা পাচ্ছে। না চিকিৎসা হচ্ছে। ডিএ নেই, বেতন নেই প্রত্যেকটি সরকারি অফিসের সামনে ধর্না চলছে। আইন অমান্য হচ্ছে পুলিস ডান্ডা দিয়ে জনগণকে সরিয়ে দিচ্ছে ।পুরো পশ্চিমবাংলা বিরোধিতার রাস্তা নিয়েছে। এসব থেকে বাঁচার জন্যই এখন মোদিজীর হাত পা ধরতে গিয়েছেন।” এছাড়া গতকাল সায়নী ঘোষ জামিন পেয়েছেন আদলতের রায়ে। এই বিষয়ে দিলীপ ঘোষ জানান, “জানিনা কার মুখ পুড়ছে কিংবা কি হচ্ছে !  কোর্ট তার কাজ করেছে। পুলিসের কাজ পুলিস করেছে। হাজার হাজার মামলা ,কেস আমরা লড়ছি।”