Home ভাইরাল খবর শূন্য দিয়ে শুরু, ২বছরেই চাষ করে আয় ২৫ লাখ টাকা

শূন্য দিয়ে শুরু, ২বছরেই চাষ করে আয় ২৫ লাখ টাকা

জীবনে সকলের ওঠানামা তো থেকেই থাকে। গরিব থেকে বড়োলোক হবার জীবনের কাহিনী অনেক শোনা যায়। একদিন গরিব থাকলেও যে সে সারাজীবন গরিবই থাকবেন সেই ধারণা ভুল প্রমান করে দিলেন তোয়ো স্রো। তিনি ক্ষুদ্র জাতি গোষ্ঠী স্রো সম্প্রদায় এর সদস্য। তোয়ো স্রো এর বাড়ি বান্দরবন শহরের চিমম্বুক এলাকার বসন্ত পাড়ায়।

তিনি গরিব ছিলেন কিন্তু সেই গরিবী জীবন থেকে বের হওয়ার জন্যই তিনি ড্রাগন ফলের চাষ করা শুরু করলেন। তার দেড় একর জমি ছিল। সেই জমিতেই তিনি ড্রাগন ফলের চাষ করা শুরু করলেন। আর এই ড্রাগন ফলের চাষ তাকে অনেকটা সাফল্য দিয়েছে। লক ডাউন এর জেরে প্রথমে ড্রাগন ফল কিছুটা কম দামে বিক্রি করলেও পরে তিনি ড্রাগন ফল বিক্রি করে অনেক লাভ করেছেন।

প্রথম ধাপে লক ডাউন এর ফলে যাতায়াত ব্যবস্থা বন্ধ থাকায় তিনি ড্রাগন ফল বাজারে পৌঁছতে পারেননি। আর বাজারও মন্দা ছিল তাই একটু কম দামে বিক্রি হয়েছে। তখন ২০০ থেকে ২৫০ টাকায় বিক্রি করেছেন কিন্তু তারপর লক ডাউন না থাকায় ড্রাগন ফল আগের দামেই বিক্রি হয়েছে ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

বর্তমানে বাংলাদেশে ড্রাগন ফলের খুব চাহিদা। এই বছরে বান্দরবান জেলায় ৫৮০ মেট্রিক টন ড্রাগন ফল উৎপাদন হয়েছে। এই বছরে ৬০০ মেট্রিক টন ছাড়িয়ে যাবে। তোয়ো স্রো বললেন , ২০১৫ সালে তিনি ড্রাগন চাষ শুরু করেছিলেন। এই ড্রাগন চাষ শুরু করার সময় তিনি অনেকটা ভয়ে ছিলেন।

ড্রাগন ফলের চাষ তিনি ঠিক মতো করতে পারবেন কিনা সেই নিয়ে তিনি একটু চিন্তিত ছিলেন। এই ড্রাগন চাষে তাকে সাহায্য করেছে তার স্ত্রী ও তার ছেলে। তিনি পুরো জমিতে খুব ভালো করে ড্রাগন ফলের চাষ করেন আর তার ফসলও খুব ভালো হয়। বান্দারবন এর মাটি ড্রাগন চাষের জন্য খুব উপযোগী। গত বছর প্রায় ২৫ লাখ টাকার ড্রাগন ফল তিনি বিক্রি করেন। ড্রাগন চাষ করে সাফল্যর পর থেকে তোয়ো স্রো ড্রাগন চাষী বলেই পরিচিত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

শীর্ষ সংবাদ

- Advertisement -

অন্য রকম