Home লাইফস্টাইল বাবা সিকিউরিটি গার্ডে কর্মরত, টিউশন পড়ার নেই টাকা! কঠিন পরিশ্রমে কুলদীপ আজ...

বাবা সিকিউরিটি গার্ডে কর্মরত, টিউশন পড়ার নেই টাকা! কঠিন পরিশ্রমে কুলদীপ আজ IRS অফিসার

কষ্ট করলে তার ফল অবশ্যই পাওয়া যায়। সৎ পথে কঠিন লড়াই লড়লে তার জয়লাভ অবশ্যই হবে। সফলতা সে একদিন অবশ্যই অর্জন করবেন। এই কথা প্রমান করে দেখালেন এক সিকিউরিটি গার্ড এর ছেলে। ছেলে টির নাম কুলদীপ। তার বাবার নাম সূর্যকান্ত দীর্ঘ 20 বছর ধরে লখনৌ বিশ্ব বিদ্যালয় এর সিকিউরিটি গার্ডের চাকরি করেন সূর্যকান্ত।

ভীষণ দরিদ্রতার মধ্যে সংসার চলে সূর্যকান্ত বাবুর। তার স্ত্রী ও চার সন্তান নিয়ে সংসার। চার সন্তানের নাম সন্দীপ , প্রদীপ , স্বাতী , কুলদীপ ও তার স্ত্রী এর নাম মঞ্জু। অভাব অনটন এর মধ্যে থাকলেও সূর্য কান্ত কখন তার সন্তান দের পড়াশোনা বন্ধ করে দেননি। কারণ সূর্যকান্ত জানতেন উচ্চশিক্ষাই একদিন তার জীবনে আনন্দ নিয়ে আসবে। তিনি সন্তান দের উচ্চশিক্ষিত করে তুলেছেন।

তার ছেলে কুলদীপ ইউ. পি. এস. সি পরীক্ষায় সফল হয়েছেন। এটি ভারতের একটি অন্যতম পরীক্ষা। 242 তম স্থানে জায়গা পেয়েছেন। অনেক কষ্ট করে তিনি আজ এই সফলতা অর্জন করেছেন। কুলদীপ এর চাকরি পাওয়ার পর তার পরিবারের সকলেই ভীষণ খুশি।

ছেলের চাকরি পাওয়ার পর সূর্যকান্ত কে প্রশ্ন করা হয়েছিল , তিনি কি এখন তার সিকিউরিটি গার্ডের চাকরি টা ছেড়ে দিবেন ? উত্তরে সূর্যকান্ত বললেন , কখনোই না কারণ অসময়ে এই চাকরি তাকে খাবার দিয়েছে। তার সন্তান দের স্বপ্ন পূরণ করতে সাহায্যে করেছে। গ্রাজুয়েশন শেষ করে তিনি নিউ দিল্লী তে একটি বাড়ি ভাড়া করে থাকতেন। ভীষণ কষ্ট করে তাকে সেখানে পড়াশোনা চালাতে হয়। সূর্যকান্তের বেতন 5000 টাকা তার থেকে কুলদীপ এর জন্য তিনি 1500 টাকা পাঠাতেন।

অর্থ এর অভাবে কোচিং করতে পারেন নি , পড়াশোনার জন্য ল্যাপটপ প্রয়োজন সেই ল্যাপটপ তিনি প্রথমে কিনতে পারেন নি বন্ধুর ল্যাপটপ ধার করে এনে পড়াশোনা করতেন। তারপর টাকা জমিয়ে দুই বন্ধু একসাথে একটি ল্যাপটপ কেনে। এই পরীক্ষা তেউ তিনি প্রথমবার সফল হন নি। সেই সময় তিনি ভীষণ ভেঙে পড়েছিলেন তারপর তার পরিবারের উৎসাহে তিনি আবার পরীক্ষা দেন এবং এই বছর তিনি সফলতা হন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

শীর্ষ সংবাদ

- Advertisement -

অন্য রকম