Home রাজ্য 'পণ'এর জন্যে গৃহবধূকে খুন! অভিযুক্ত স্বামী ও শশুর

‘পণ’এর জন্যে গৃহবধূকে খুন! অভিযুক্ত স্বামী ও শশুর

অনলাইন ডেস্ক,২৬জুলাইঃ  ভারতবর্ষে একসময়কার সবচেয়ে বড়ো সমস্যা ছিল ‘পণ’ নেবার মতো একটি নোংরা প্রথা যেখানে বিয়ের জন্যে ছেলে পক্ষকে মেয়ে পক্ষের থেকে ছেলে পক্ষের কথা অনুযায়ী টাকা দেবার পর বিয়ের পিড়িতে বসানো হতো। পুরোনো এই প্রথা বর্তমানে অনেকটাই কমে গিয়েছে তবে এখনো বিভিন্ন সময়েও এইরূপ প্রথার চলন রয়েছে।গত শনিবার পূর্ব মেদিনীপুর জেলার রামনগর থানার সাতবাটিয়া গ্রামে বাড়তি ‘পণ’ না দেওয়ায় এক গৃহবধূকে খুনের ঘটনা সামনে আসে।

খবর সূত্রে জানা যায়,বাড়তি পণ না দেওয়ায় নিজের স্ত্রীকে খুন, গ্রেফতার স্বামী, শশুর এছাড়াও পলাতক আরও দুই।জানা গিয়েছে,সাতবাটিয়া গ্রামের সত্তরঞ্জন মালির বড়ো ছেলে মিলন মালির সাথে দীঘা থানার একটি গ্রামের এক ব্যক্তি নারায়ণ চন্দ্র জানার মেয়ে চন্দনা জানার সাথে বেশ কয়েকবছর আগে বিয়ে হয়,জানা গিয়েছে,নারায়ণ বাবু তার মেয়ের বিয়েতে প্রায় ৩লক্ষ্য টাকা খরচ করেন। এর পরেই অভিযোগ আসে,শশুর বাড়ির লোকেরা আরও লক্ষাধিক টাকার জন্যে দাবি করে, এমনকি বেশ কয়েকবার গৃহবধূর ওপর অত্যাচার করা হয়।শশুর বাড়ির তরফ থেকে চাওয়া বাকি দাবির টাকা দিতে না পারায় গত ২০তারিখ চন্দনা মালিকে খুন করে বলে অভিযোগ করা হয় মৃত মেয়ের বাড়ির তরফ থেকে।

এইদিন অভিযোগ আসতেই,রামনগর থানার পুলিশ মৃত মহিলার স্বামী এবং তার শশুরকে গ্রেফতার করে, এছাড়া ঘটনায় যুক্ত থাকার সম্ভাবনা থাকা মৃত মহিলার শাশুড়ি সহ দেওর এখনো পলাতক রয়েছে।তবে পুলিশ বাকিদেরও খোঁজ করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

শীর্ষ সংবাদ

- Advertisement -

অন্য রকম