Home লাইফস্টাইল অপমান অবহেলা সহ্য করে আজ IAS অফিসার! জানুন কিভাবে জীবনে সাফল্য পেল...

অপমান অবহেলা সহ্য করে আজ IAS অফিসার! জানুন কিভাবে জীবনে সাফল্য পেল এই ৩ফুটের মেয়ে

অনলাইন ডেস্ক,২৮জুলাইঃ শারীরিক রূপ,শারীরিক উচ্চতাই সব কিছু নয়,আসলে কোনো মানুষের মধ্যে অভন্তরীন গুন থাকাটাই সবথেকে বেশি জরুরি, এমনটাই প্রমান করে দিলেন উত্তরাখন্ডের আরতি যিনি মাত্র ৩ফুটের উচ্চতা নিয়ে রাজস্থান ক্যাডারের আইএএস পদে যুক্ত হন।

এক সময়ে আরতি নামের প্রতিভাকে নিয়ে তার আশেপাশের লোকেরা হাসাহাসি করতেন এমনকি বৈষম্যের চোখেও দেখা হতো আরতিকে, আজ সমাজের সেই ছোট উচ্চতার মেয়েটি সকলকে যোগ্য জবাব দিয়ে সবার অপমানক করাকে নিচু দেখিয়েছে উত্তরাখণ্ডের আরতি ডোগরা। আজ আরতি রাজস্থান ক্যাডারের আইএএস অফিসারের পদে নিযুক্ত।

আরতির বাবা রাজেন্দ্র ডোগরা হলেন একজন সেনার অফিসার আরতির মা হলেন একজন স্কুল শিক্ষিকা।জানা যায়, ছোট বেলায় আরতির বাবা মা কে ডাক্তার বলে দিয়েছিলেন ছোট স্বাভাবিক বাচ্চাদের মত তার মেয়ের উচ্চতা বৃদ্ধি হবে না। তবে ছোটবেলা থেকেই বয়স বৃদ্ধির সাথে উচ্চতা বৃদ্ধি ঘটেনি আরতির তো কি হয়েছে?শারীরিক উচ্চতা কম হলেও আরতির স্বপ্নের উচ্চতায় কেউ বাঁধা দিতে পারেনি, বর্তমানে সে আইএএস অফিসার।

আরতির বাবা মা তার মেয়েকে নিয়ে খুব চিন্তা করতেন। কিন্তু প্রত্যেক ক্ষেত্রে মেয়েকে সাহস জুগিয়েছেন তার মা ও বাবা, প্রত্যেক বাবা মায়ের মতোই আরতির বাবা মায়ের ইচ্ছে ছিল তাদের মেয়ে একদিন তাদের ইচ্ছেপূরণ করবে আর সেই ইচ্ছে পূরণ করেই আজ সে অনেকের কাছেই প্রেরণা হয়ে দাঁড়িয়েছে কারন সে ৩ফুট উচ্চতা নিয়েও আইএএস অফিসার।আইএএস অফিসার আরতি বলেন,ছোট বেলায় যে রকমের বঞ্চনার শিকার হয়েছেন তিনি তা কোনো মানুষের ওপর হতে দেবেন না, এমনকি কোনো মানুষকেই বড়ো ছোট বা অ’ছ্যুত হিসেবে তিনি দেখেন না। উত্তরাখণ্ডের আরতি সত্যিই একজন সফলতার প্রতিচ্ছবি সাথেই মানুষের কাছে তিনি একজন প্রেরণা যাকে দেখে ভারতবর্ষের প্রত্যেকটি যুবক থেকে যুবতীরা তাদের মনোবল বৃদ্ধি ও সাথেই সফলতার পথ খুঁজেপেতে সক্ষম হবে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

শীর্ষ সংবাদ

- Advertisement -

অন্য রকম