Home রাজ্য ঐতিহ্যবাহী কলেজস্কোয়ার এর পুজোর রাশ হাতে নিলো তৃণমূল ,গোষ্ঠী দ্বন্দ্বে বন্ধ হলো...

ঐতিহ্যবাহী কলেজস্কোয়ার এর পুজোর রাশ হাতে নিলো তৃণমূল ,গোষ্ঠী দ্বন্দ্বে বন্ধ হলো মোহাম্মদ আলী পার্কের পুজো ,সব পুজোতেই NO ENTRY করলো কলকাতা হাইকোর্ট

দুর্গাপুজোকে কে ঘিরে ধীরে ধীরে চড়ছিলো উত্তেজনার পারদ। করোনা মহামারীর কে অগ্রাহ্য করেই রাস্তায় নামছিলো মানুষের ঢল। পুজো কেন্দ্রিক রাজনীতির ময়দান ও ক্রমশ জমজমাট হয়েউঠছিলো। ইতিমধ্যেই সমস্ত বারোয়ারী পুজো কমিটি কে পঞ্চাশ হাজার টাকা করে অনুদান দিয়ে ও বিদ্যুতের মাশুলে ছাড় এবং অন্যান্য সুবিধা দানের মধ্যে দিয়ে জনপ্রিয়তা লাভের চেষ্টা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। পিছিয়ে নেই রাজ্য বিজেপি ও তাদের তত্বাবধানে সল্টলেকের ইস্টট্রান জোনাল কালচারাল সেন্টারে শুরু হচ্ছে দুর্গাপুজো ,যার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

ইতিমধ্যেই ঐতিহ্যবাহী কলেজস্কোয়ার এর পুজোর রাশ নিজেদের হাতে নিয়েছে তৃণমূল। কংগ্রেস নেতা সোমেন মিত্রের পুজো বলে পরিচিত কলেজস্কোয়ার এর পুজোর সভাপতি হয়েছেন তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় ,অপরদিকে বহু বছর ধরে এই পুজোর উদ্যোক্তা বলে পরিচিত সৌমেন ঘনিষ্ঠ বাদল ভট্টাচার্য সরে দাঁড়িয়েছেন পুজো কমিটি থেকে। কলকাতার অন্যতম বড়ো পুজো মোহাম্মদ আলী পার্কের পুজো কমিটি ঘিরে প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক দীনেশ বাজাজ ও বর্তমান তৃণমূল বিধায়ক স্মিতা বক্সীর বিরোধ শুরু হয়েছিল গতবছর থেকেই। দীনেশ বাজাজ কে সরিয়ে পুজোতে স্মিতা বক্সীর নিয়ন্ত্রণ কায়েম হওয়ার পরই সংকুচিত হয়েছিল পুজো পরিসর ,এই বছর বন্ধই হয়েগেলো মোহাম্মদ আলী পার্কের পুজো।

অপরদিকে করোনা মহামারী ছড়াতে পারে এই আশঙ্কায় দুর্গাপুজো মামলায় ঐতিহাসিক রায়দান করে সব পুজো মণ্ডপ গুলি কন্টেইনমেন্ট জোন ঘোষণা করল হাইকোর্ট। পুজোর এলাকায় ব্যারিকেড তৈরি করে বাফার জোন তৈরি করতে হবে। দর্শক শূন্য রাখতে হবে মণ্ডপ। উদ্যোক্তাদের নামের তালিকা জমা দিতে হবে। মণ্ডপের বাইরে উদ্যেক্তাদের নামের তালিকা টাঙাতে হবে ৷ সেই ব্যক্তিরাই শুধু মণ্ডপে ঢুকতে পারবেন ৷ এদিন হাইকোট জানায়, এতে কোনও সন্দেহ নেই রাজ্য পর্যাপ্ত গাইডলাইন করেছে। এটাও ঠিক যে পুলিশ, প্রশাসন তাদের সর্বস্ব দিয়ে চেষ্টা করবেন কিন্তু তাদের সীমাবদ্ধতার কথাও ভেবে দেখা উচিৎ। রাজ্যে পুজোর ভিড় নিয়ন্ত্রণে জনস্বার্থ মামলায় হাইকোর্টের ঐতিহাসিক রায়ে করোনাকালে দর্শকশূন্য হয়েই পাঁচদিন পুজো চলবে রাজ্যের সমস্ত পুজো মণ্ডপে ৷কোর্টের এই রায় কে সুপ্রিম কোর্টে চ্যালেঞ্জ জানবার বিষয়ে চিন্তা ভাবনা করছে রাজ্য সরকার।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

শীর্ষ সংবাদ

- Advertisement -

অন্য রকম