মসজিদগুলিতে কড়া নির্দেশিকা জারি কর্ণাটক পুলিশের । বন্ধ হচ্ছে লাউডস্পিকারে আজান

হিন্দু সংগঠনের প্রতিবাদে অবশেষে বড় সিদ্ধান্ত! মসজিদে মাইক বাজানো নিয়ে এই বিজ্ঞপ্তি জারি কর্ণাটক পুলিশের

মসজিদগুলিতে কড়া নির্দেশিকা জারি কর্ণাটক পুলিশের । বন্ধ হচ্ছে লাউডস্পিকারে আজান

আবার শিরোনামে কর্ণাটক (KARNATAKA) ।  বন্ধ হচ্ছে লাউডস্পিকারে আজান

কয়েকদিন আগেই হিজাব বিতর্কের সূত্রপাত হয়েছিল  কর্ণাটকের মাটি থেকেই। এবার দু'দিন আগেই হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি দাবি উত্থাপন করেছিল যে মসজিদের মাইক বাজানো বন্ধ করতে হবে। সেই দাবি অনুযায়ী এবার পদক্ষেপ নিয়েছে কর্ণাটক পুলিশ। গতকাল  মসজিদ গুলিকে কে কর্ণাটক পুলিশ নোটিশ (NOTICE) পাঠিয়ে জানিয়েছে যে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী নির্দিষ্ট ডেসিবলের (DESIBEL)  মধ্যেই লাউডস্পিকার (LOUDSPEAKER)  বাজাতে হবে মসজিদ গুলিকে। এই ঘটনায় রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে সমগ্র দেশজুড়ে। 

কি নোটিশ জারি করেছে কর্ণাটক পুলিশ? 

কয়েকদিন আগেই কর্নাটকের হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি মসজিদের মাইক এর বিরোধিতা করে সক্রিয় হয়। তারা মসজিদে নামাজ পড়ার সময় মাইক বাজানোর বিরোধিতা করতে থাকে। ‌ সেই সাথে তারা জানিয়েছিল যে যদি মসজিদের মাইকের এই আওয়াজ বন্ধ না করা হয় তাহলে তারা প্রতিদিন ভোর বেলা উচ্চঃস্বরে ভজন গাইতে শুরু করে দেবে।

সোশ্যাল মিডিয়াতে (SOCIAL MEDIA)  একটি ভিডিওতে তারা জানায়, রাত 10 টা থেকে সকাল 6 টা পর্যন্ত মাইক বাজানো যাবে না। ‌ এই মর্মে সুপ্রিম কোর্ট  (SUPREME COURT) একটি রায় দিয়েছে , যা কখনোই মানা হয়না ।  গতকাল কর্নাটকের মসজিদগুলোকে একটি নোটিশ পাঠিয়েছে কর্ণাটক পুলিশ।

ওই নোটিশে বলা হয়েছে সুপ্রিম কোর্টের রায় মেনে নিয়ে মসজিদ গুলিকে একটি নির্দিষ্ট ডেসিবেল এর মধ্যে মাইক বাজাতে হবে। যদি এই নোটিশ এর অন্যথা হয় তাহলে প্রশাসন আইনি ব্যবস্থা অবলম্বন করবে। মসজিদ কমিটি কে নিশ্চিত করতে হবে মাইকের আওয়াজ যাতে মসজিদের বাইরে না আসে। এই বিষয়টিকে কেন্দ্র করে কর্নাটকের মন্ত্রী কে এস এসাইয়াওরাপা বলেছেন, "মুসলিম সম্প্রদায়ের সাথে এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা হচ্ছে। মসজিদের মাইকের আওয়াজে পড়ুয়াদের এবং অসুস্থ মানুষদের যথেষ্ট সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে।" কর্ণাটক পুলিশের এই নোটিশ ঘিরে ইতিমধ্যেই যথেষ্ট জলঘোলা শুরু হয়ে গিয়েছে সমগ্র দেশ জুড়ে।