Home রাজ্য বোমা তৈরির কারখানাগুলি বন্ধ করুন’, মালদা বিস্ফোরণ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ রাজ্যপালের

বোমা তৈরির কারখানাগুলি বন্ধ করুন’, মালদা বিস্ফোরণ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ রাজ্যপালের

রাজ্য পালের সঙ্গে দিনের পরেদিন রাজ্যের সঙ্গে সংঘাত লেগেই আছে । রাজ্য পাল অনেকেদিন থেকে দার্জিলিং এর সফরে আসেন সেখান থেকে তিনি কোচবিহার মদনমোহন বাড়িতে ঘুরতে আসেন । আর সেখানে এসেই তিনি ক্ষোভ উগ্ররে দেন রাজ্যের শাসন ব্যবস্থা নিয়ে । আর আগেই তিনি রাজ্যের অনেক কাজে আপত্তি জানান এমন কি তিনি রাজ্যে গুন্ডা রাজ চলছে বলে মন্তব্য করেন ।
আর ঠিক একই রকম ঘটনা দেখা গেলো আজকের মালদায় বোমা বিস্ফোরণ এর ঘটনায় ।মালদহে প্লাস্টিক কারখানায় ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা নিয়ে টুইটে মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর। এদিন টুইটে মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ করে রাজ্যপাল লিখেছেন, ‘এবার তো বোমা তৈরির কারখানাগুলি বন্ধ করুন’। পাশাপাশি এই ঘটনায় নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি জানান রাজ্যপাল।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায় বৃহস্পতিবার সুজাপুর বাস স্ট্যান্ড লাগোয়া একটি প্লাস্টিক কারখানায় ভয়াবহ বিস্ফোরণ হয়। জানা গেছে, এই কারখানার মালিক স্থানীয় ব্যবসায়ী অমলু শেখ ও আবু সায়েদ। কারখানার শ্রমিক ও স্থানীয় বাসিন্দা সূত্রে জানা গেছে, বিদ্যুৎ চালিত ক্রাশার মেশিন বিস্ফোরণ হয়েই এই ঘটনা। বিস্ফোরণের তীব্রতায় পাঁচ জন শ্রমিকের দেহ ছিন্নভিন্ন হয়ে যায়। কর্মরত আরো বেশ কয়েকজন শ্রমিক এ ঘটনায় আহত হন। বেশ কয়েকজন স্থানীয় বাসিন্দারাও আহত হয়েছেন বলে দাবি এলাকাবাসীর। বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে গোটা এলাকা। নিমেষের মধ্যে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয় এলাকাজুড়ে। ঘটনার খবর পেয়ে তড়িঘড়ি পৌঁছাই কালিয়াচক থানার পুলিশ। মৃতদেহ গুলি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয় মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। পাশাপাশি আহতদের চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয় হাসপাতালে। ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে যান জেলার পুলিশ সুপার অলক রাজোরিয়া। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দেখেন তারা। তবে নিছকই দুর্ঘটনা না এর পেছনে রয়েছে কোন অন্য রহস্য তা খতিয়ে দেখছেন জেলা পুলিশের কর্তারা।

এই ঘটনার পরে কলকাতা থেকে সেখানে ছুটে আসেন ফিরাদ হাকিম । যদিও এই নিয়ে বিজেপি বলেন যে এই সব ব্যাপার তো এখন রাজ্য সরকারে কাছে দৈনিক ব্যাপার ।

যদিও এই বিষয়ে মালদা পুলিশ সুপার বলেন -“পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, প্লাস্টিক থেকে বিভিন্ন সামগ্রী তৈরি করার ক্রেসার মেশিন বিস্ফোরণের ফলে এই ঘটনা। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে আহত আরও বেশ কয়েকজন। তবে বিস্ফোরণের ঘটনা কি কারনে সে বিষয়ে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ নমুনা সংগ্রহ করেছে বাকি তদন্তের জন্য ফরেনসিক বিভাগের বিশেষজ্ঞরা আসবেন এমনটাই জানিয়েছেন পুলিশ সুপার।

এই দিকে দিলীপ ঘোষ বলেন রাজ্য টাই এখন একটা বোমা তৈরির কারখানা ।এই সরকার যেদিন এসেছে তখন থেকেই একের পর এক বিস্ফোরণ হচ্ছে। বাংলা বোমা-বন্দুকের কারখানা হয়ে গেছে। বাইরে থেকে বিস্ফোরক আসছে, উগ্রপন্থী আসছে। এই সরকারের কোনও কিছুতেই কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই। এরা শুধু বিজেপিকে আটকাতে ব্যস্ত”। পাশাপাশি এই বিস্ফোরণের ঘটনায় এনআইএ তদন্তের দাবিও জানিয়েছেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

শীর্ষ সংবাদ

- Advertisement -

অন্য রকম