fbpx
Friday, July 23, 2021
Homeনতুন খবরযুগান্তকারী পদক্ষেপ নিয়ে মেয়েদের বিয়ের বয়স বাড়াতে পারে কেন্দ্র

যুগান্তকারী পদক্ষেপ নিয়ে মেয়েদের বিয়ের বয়স বাড়াতে পারে কেন্দ্র

স্বাধীনতা দিবসের ভাষণের পর আরো একবার মেয়েদের বিয়ের বয়স সংক্রান্ত্র প্রসঙ্গ উত্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী।পূর্ববর্তী ভাষণে তিনি বলেছিলেন, মেয়েদের বিয়ের বয়স কত হওয়া উচিত তা নিয়ে দেশজুড়েই সমীক্ষা চলছে। কমিটিও গঠন করা হয়েছে। সেই কমিটির সুপারিশ মেনে খুব দ্রুত এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে কেন্দ্রীয় সরকার।আবার বিশ্ব খাদ্য দিবসের অনুষ্ঠানে ৭৫ টাকার কয়েন প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, “আমাদের দেশের মেয়েদের বিয়ের বয়স নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। আমাদের মেয়েরা জানতে চেয়েছে কমিটি কী সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ওরা চিঠি লিখে জিজ্ঞেস করেছে আমাকে। সরকার এই বিষয়ে কাজ করছে। খুব তাড়াতাড়ি সিদ্ধান্তের কথা জানানো হবে। ”

স্বাধীনতার পর দেশে ১৯৭৮ সাল থেকে মেয়েদের বিবাহের নূন্যতম বয়স ১৫ থেকে বাড়িয়ে নির্ধারিত হয়েছিল ১৮ বছর এবং পুরুষদের ক্ষেত্রে ২১ বছর। এবার এই নিয়মের বদল হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন ২০২০-২১ সালের বাজেট ভাষণে বলেছিলেন, ‘‘তৎকালীন ‘সারদা আইন (১৯২৯)’ সংশোধন করে নারীর বিয়ের বয়স ১৫ থেকে ১৮ করা হয়েছিল। তবে ভারতের অগ্রগতির সঙ্গে মহিলাদের শিক্ষা এবং কর্মসংস্থানের সুযোগ বাড়ছে। ‘মেটারনাল মর্টালিটি রেট’ বা প্রসূতি মৃত্যুর হার কমানো এবং মহিলাদের পর্যাপ্ত পুষ্টি সরবরাহের দিকেও গুরুত্ব দিতে হবে। মাতৃত্বে প্রবেশের বয়সের পুরো বিষয়টিকেই এই দৃষ্টিকোণ থেকে দেখা প্রয়োজন।’’

অর্থমন্ত্রীর এই বক্তব্যের সূত্র ধরেই গত জুন মাসে রাজনীতিবিদ তথা সমাজকর্মী জয়া জেটলির নেতৃত্বে একটি ১০ সদস্যের টাস্ক ফোর্স গড়ে তোলা হয় এতে নীতি আয়োগের সদস্য ভি কে পল এবং অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বরা রয়েছেন।।দু’বছর আগে একই প্রস্তাব এসেছিল জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের তরফেও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

শীর্ষ সংবাদ

অন্য রকম