Home অন্যান্য অশ্লীল ভঙ্গিতে ওয়েডিং ফটোশ্যুট, সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলের মুখে দম্পত্তি

অশ্লীল ভঙ্গিতে ওয়েডিং ফটোশ্যুট, সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলের মুখে দম্পত্তি

করোনা পরিস্থিতিতে বিয়ে হয়েছিল অনেক এর। অনেকেই করোনা পরিস্থিতির মধ্যে নিজেদের দাম্পত্য জীবন শুরু করেছিলেন। এই রকমের এক নব দম্পতি হল কেরালার ঋষি কার্তিকেযন ও লক্ষী। করোনা পরিস্থিতিতে বিয়ে হওয়ার ফলে তাদের বিয়ে খুব একটা ধুমধাম করে হয়নি। আর তারা ফটোসুটও করতে পারেননি।

গত ১৬ সেপ্টেম্বর তাদের ছোট করে বিয়ে সারা হয়। তারপর তারা মধুচন্দ্রিমাতে গেলেন ইদ্দুকি জেলার চা বাগানে ঘেরা ভ্যাগামনে। আর তাদের মধুচন্দ্রিমার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার পর রীতিমতো শুরু হয়ে যায় শোরগোল। মধুচন্দ্রিমাতে তারা পোস্ট ওয়েডিং ফটোশ্যুট করেন।

মধুচন্দ্রিমাতে তাদের ছবি তোলেন কেরালার ওয়েডিং স্টোরিস সংস্থার মালিক আখিল কার্তিকেয়ন। সুন্দর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য এর মধ্যে তারা মধুচন্দ্রিমার ফটোসুট করেছেন। সাদা চাদর গায়ে জড়িয়ে নানা ভঙ্গিমায় তারা ফটোসুট করেছেন। তারা তাদের মধুচন্দ্রিমাতে তোলা ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করেছেন। আর তারপর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে শুরু হয় তোলপাড়। তাদের মধুচন্দ্রিমার পোস্টে নানা রকমের অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ কমেন্ট করা হয়।

তাদের ফেসবুক ও ইন্সট্রাগ্রাম এ পোস্ট করা তাদের মধুচন্দ্রিমার ছবি গুলোতে গালিগালাজ কমেন্ট শুরু হয়। এই কমেন্ট দেখে রীতিমতো অবাক হন এই নব দম্পতি। তাদের মধুচন্দ্রিমার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার অধিকাংশ ফেসবুক ব্যবহারকারি নীতি পুলিশদের ভূমিকায় সম্মুখীন হন। এইসব অশ্লীল ভাষার কমেন্ট এর উত্তরে ঋষি কার্তিকেয়ন বলেন , তারা মধুচন্দ্রিমাতে গিয়ে ফটোসুট এর সময় তাদের গায়ে ভালোমতোই কাপড় ঢাকা ছিল। ভ্যাগামনের মতো খোলা জায়গায় কাপড় না পরে ছবি তোলা সম্ভব নয়।

ছবি গুলোর সম্পূর্ণ কৃতিত্ব ফটোগ্রাফার এর। ফটোগ্রাফার যে নৈসর্গিক ছবি তুলেছেন সেটা সম্পূর্ণ তার দক্ষতা। তিনি আরও বলেন যে তাদের মধুচন্দ্রিমার ছবি নিয়ে যে যতই অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করুক না কেন তারা ফেসবুক থেকে তাদের ছবি ডিলিট করবেন না। তিনি এইসব ট্রোল ও হেনস্থার জবাব দিতে চাইছেন না। তারা পুলিশ এর কাছেও কোনো অভিযোগ করবেন না এইসব ট্রোলিং এর বিরুদ্ধে। কারণ এইসব ট্রলিং কয়েকদিন এই বন্ধ হয়ে যাবে। তাই তিনি এইসব ট্রলিং এর জবাব দিতে গিয়ে নিজের সময় নষ্ট করতে চাননা। তিনি বলেন অনেকেই প্রি ওয়েডিং ফটোসুট করেন। আর তারা মধুচন্দ্রিমাতে ফটোসুট করার পরিকল্পনা করেছেন। আর এই পরিকল্পনাতে তাদের পরিবারেরও কোনো আপত্তি ছিল না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

শীর্ষ সংবাদ

- Advertisement -

অন্য রকম