রেল দুর্ঘটনা নিয়ে কেন্দ্রকে গালাগাল দিতে গিয়ে অসুস্থ রবীন্দ্রনাথ,ফিরলেন বুকে ব্যথা নিয়ে

শুক্রবার দোহমনিতে দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা তৃণমূল নেতা রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। দুর্ঘটনাস্থল ঘুরে দেখার সময় বুকে ব্যথা অনুভব করেন । ব্যথার জেরে প্রায় পড়ে যাচ্ছিলেন তিনি।

রেল দুর্ঘটনা নিয়ে কেন্দ্রকে গালাগাল দিতে গিয়ে অসুস্থ রবীন্দ্রনাথ,ফিরলেন বুকে ব্যথা নিয়ে
রবীন্দ্রনাথ ঘোষ

বৃহস্পতিবার বিকেলে ময়নাগুড়ির দোহমনিতে ভয়াবহ রেল দুর্ঘটনা ঘটে। বিকানের-গুয়াহাটি এক্সপ্রেসের ১২টি কামরা লাইনচ্যুত হলে ৯ জনের মৃত্যু হয়। আহত হয় ৩৬ জন। এই আবহে শুক্রবার দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা তৃণমূল নেতা রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। সেখানে গিয়ে এই রেল দুর্ঘটনার জন্য সরাসরি কেন্দ্রের দিকে আঙুল তোলেন প্রাক্তন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী।

বুকে ব্যথা অনুভব করেন তিনি। ব্যথার জেরে প্রায় পড়ে যাচ্ছিলেন তিনি। তখনই তাঁর আশেপাশে থাকা মানুষজন তাঁকে ধরে নেয়। একটি বোতলে করে জল দেওয়া হয় তাঁকে। পরে সেখানে থেকে বের করে নিয়ে যাওয়া হয় তৃণমূল নেতাকে। তাড়াতাড়ি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। অবশ্য হাসপাতালে গিয়ে প্রাথমিক চিকিত্সার পর তিনি সুস্থ বোধ করেন। পরে বাড়ি ফিরে যান রবীন্দ্রনাথ ঘোষ।

অসুস্থ হওয়ার আগে দোহমনিতে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে অবশ্য কেন্দ্রকে বিঁধতে ছাড়েননি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। প্রাক্তন মন্ত্রী বলেন, ‘কেন্দ্রীয় সরকারই এই রেল দুর্ঘটনার জন্য দায়ী। উত্তর-পূর্বের ট্রেনে পুরনো কোচ ব্যবহার করা হয় বলেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। এই যাত্রাপথে কেন অত্যাধুনিক কোচ দেওয়া হয়নি? উত্তর ও দক্ষিণ ভারতের ট্রেনে অত্যাধুনিক কোচ লাগানো হয়ে থাকে। এখানেও তেমনই কোচ দেওয়া হোক। এই দুর্ঘটনার উচ্চপর্যায়ের তদন্ত প্রয়োজন। কী কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে, সেই রিপোর্ট ১৫ দিনের মধ্যে প্রকাশ করা হোক। এই ঘটনার জন্য যাঁরা দায়ী, যাঁদের গাফিলতি, তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হোক।’

Link