Home রাজনীতি শীতলকুচি নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য রাহুলের

শীতলকুচি নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য রাহুলের

বঙ্গরাজনীতির শিরোনামে এখন কোচবিহারের শীতলকুচি, যেখানে ভোটের উত্তাপে ৫টি জীবন চলে গিয়েছে।ভোটের লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে বন্দুকের গুলিতে প্রান হারায় একজন ১৮বছরের যুবক, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের গুলিতে মৃত হয়েছে বলে খবর।শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে চার জনের মৃত্যুর ঘটনায় ইতিমধ্যেই উত্তাল রাজ্য।ওই ঘটনা নিয়ে এর আগে দিলীপ ঘোষ আর এবারে হাবড়ার বিজেপি প্রার্থী রাহুল সিনহাশীতলকুচির ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন , “৪ জন নয়, ৮ জনকে গুলি করে মারা উচিৎ ছিল।” কেন্দ্রীয় বাহিনী কেন চার জনকে মারল, তার জন্য বাহিনীকেই শোকজ করা উচিৎ বলেও দাবী করলেন তিনি।

 

 

রাহুল সিনহার এইরূপ মন্তব্যে ইতি মধ্যেই ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।রবিবার রাতে শীতল কুচি নিয়ে সাংবাদিকদের করা প্রশ্নে রাহুলের উত্তর, “ভোটের লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ছেলেকে, শুধু বিজেপি করার অপরাধে যারা গুলি করে মারে, তাদের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যারা কেন্দ্রীয় বাহিনীর দিকে বোম ছুড়ে মানুষকে ভোট দিতে আটকাচ্ছে, তাঁদের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আসলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিন শেষ হয়ে গেছে।পাশাপাশি রাহুল এও বলেন, “ঝামেলা পাকাতে এলে কী হতে পারে, তা তো শীতলকুচিতে দেখেছেন। কেন্দ্রীয় বাহিনী উচিৎ জবাব দিয়েছে। আবার করলেও এই জবাব দেবে। শীতলকুচিতে ৪ জন নয়, ৮ জনকে গুলি করে মারা উচিৎ ছিল। কেন তা করা হয়নি, তার জন্য বাহিনীকে শোকজ করা উচিৎ।”

 

 

পাল্টা এই প্রসঙ্গে হাবড়ায় রাহুল সিনহার প্রতিপক্ষ জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেছেন, “রাহুল সিনহা পাগল হয়ে গেছেন। নিজের চরম শত্রুকেও এভাবে মেরে ফেলার কথা বলা যায় না। উনি কখনও ভোটে জেতেননি৷ এবারও রেকর্ড ব্যবধানে হারবেন। তাই পাগলের প্রলাপ বকছেন।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

শীর্ষ সংবাদ

- Advertisement -

অন্য রকম