fbpx
Sunday, August 1, 2021
Homeরাজ্যশিক্ষকদের জন্য ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার! জানুন বিস্তারিত

শিক্ষকদের জন্য ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার! জানুন বিস্তারিত

দৈনিক ডেস্ক,২৩জুলাইঃ এবার থেকে শিক্ষকদের জন্য রইলো সুসংবাদ, বড় সিদ্ধান্তে উপনীত হল রাজ্য সরকার। সমগ্র দেশ তথা বিশ্ব জুড়ে যেখানে করোনা থাবায় আক্রান্ত হয়ে পড়েছে, সেখানে দাঁড়িয়ে তখন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন রাজ্য সরকার শিক্ষকদের জন্যে নিল বড় পদক্ষেপ।

এতদিন রাজ্যের কলেজগুলিতে যারা অতিথি শিক্ষক হিসেবে ভূমিকা পালন করতেন তাদের সমস্যার সমাধান করল উচ্চশিক্ষা দফতর। রাজ্যের দাবী এবার থেকে রাজ্যের প্রায় ১২ হাজার অস্থায়ী কলেজ শিক্ষক উপকৃত হবেন। জানা যায়, আগে ক্লাস পিছু টাকা পেতেন রাজ্যের প্রায় সাড়ে ৮ হাজার অতিথি শিক্ষক। প্রায় ১৯ হাজার টাকা ভাতা হসেবে পেতেন প্রায় ৩ হাজার পার্ট টাইমার।
এবং ২৫ হাজার টাকা ভাতা পেতেন ৫০০ জনের মত চুক্তিভিত্তিক শিক্ষক।সংশ্লিষ্ট কলেজ তাঁদের ব্যাক্তিগত ফাণ্ড ব্যাবহার করে এতদিন এর সমাধান ঘটায়। পরিবর্তন হতে চলেছে এবার তা, রাজ্যের সেই নিয়মের সাথে বাড়ানো হচ্ছে ভাতা। রাজ্য সরকার মনে করেছে এখন থেকে তাঁদের সাম্মানিক হিসেবে ভাতা দেয়া হবে। অভিজ্ঞতার পরিপ্রেক্ষিতে এই সব শিক্ষকদের স্যাক্ট-১ এবং স্যাক্ট-২ ক্যাটিগরিতে ভাগ করা হয়েছে।

স্যাক্ট-১: এতে কুড়ি হাজার করে টাকা দেয়া হবে ১০ বছরের কম অভিজ্ঞতা সম্পন্ন এবং ইউজিসির যোগ্যতামান না থাকা শিক্ষকদের। কিন্তু ২৫ হাজার টাকা করে পাবেন ১০ বছরের কম অভিজ্ঞতা সম্পন্ন এবং ইউজিসির যোগ্যতামান থাকা শিক্ষকরা।
স্যাক্ট-২: এই ক্যাটাগরিতে ৩১ হাজার টাকা ভাতা হিসেবে দেয়া হবে ১০ বছরের বেশি অভিজ্ঞতা সম্পন্ন এবং ইউজিসির যোগ্যতামান না থাকা শিক্ষকদের। কিন্তু ৩৫ হাজার টাকা করে ভাতা হিসেবে দেয়া হবে ১০ বছরের বেশি অভিজ্ঞতা সম্পন্ন এবং ইউজিসির যোগ্যতামান থাকা শিক্ষক দের।

আবার অপরদিকে সমগ্র রাজ্যে শুরু হয়েছে covid19 -র গোষ্ঠী সংক্রমণ, আক্রান্তের সংখ্যা দিনকে দিন বিপুল পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়ে চলেছে এবং সুস্থ হওয়ার হার তুলনা মূলক ভাবে কমে গেছে। তাই রাজ্য সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে করোনা চেন ভাঙতে সপ্তাহে দুদিন কঠোর ভাবে লকডাউন পালন করবার। এদিন গতকালের থেকে সুস্থতার হার কিছুটা বাড়লেও গত দু সপ্তাহে সুস্থতার হার নেমেছে প্রায় ৭ শতাংশ। এদিকে আজ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ২ হাজার ২৯১ জন, মৃত্যু হয়েছে ৩৯ জনের। যা এতদিনের মধ্যে একদিনে সর্বাধিক। রেকর্ড ভাঙা সংক্রমণ আর মৃত্যুর দিনে করোনা বিহীন জেলা হল ঝাড়গ্রাম।এই জেলাতে আজ চিকিৎসাধীন আক্রান্তের সংখ্যা নেমে এসেছে শূণ্যতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

শীর্ষ সংবাদ

অন্য রকম