Home ভাইরাল খবর অভাব-অনটন নিত্যদিনের সঙ্গী, পেট চালাতে ঠোঙা বানাচ্ছেন বিশ্বকাপজয়ী কবাডি খেলোয়াড়

অভাব-অনটন নিত্যদিনের সঙ্গী, পেট চালাতে ঠোঙা বানাচ্ছেন বিশ্বকাপজয়ী কবাডি খেলোয়াড়

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রায় দেখা যায় অনেকের জীবনের অনেক কঠিন লড়াই এর কাহিনী। কিভাবে মানুষ যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও তাদের নিজের সংসার চালানোর জন্য নানা ভাবে কষ্ট করে চলছে। সেরা পুরস্কার এর শিরোপা থাকা সত্ত্বেও জোটেনি কোনো চাকরি যার ফলে অতি কষ্টে কাটাতে হয় দিন। সম্প্রীতি এমনি একজন এর জীবনের কাহিনী ভেসে এলো সোশ্যাল মিডিয়ায়। তার সংসার চালানোর কষ্টের সাক্ষী হয়ে থাকলেন নেটিজেনেরা। তিনি হলেন সঙ্গীতা। তিনি সুন্দরবন এর রায়দীঘি এলাকার গ্রামের মেয়ে। তার স্বপ্ন হল পড়াশোনার পাশাপাশি তিনি একজন ভালো কবাডি খেলোয়াড় হবেন। পঞ্চম শ্রেণীতে পরতে পরতে তিনি কবাডি খেলাকে ভালোবেসে ফেলেন। পড়াশোনার পাশাপাশি তিনি একজন সফল কবাডি খেলোয়াড় হতে চান। একসময় জাতীয় দলের সেরা পুরস্কার এর শিরোপা তিনি পান।

সঙ্গীতা শুধু মাত্র দেশেই নয় নেপালের আন্তর্জাতিক খেলায় দেশের হয়ে অধিনায়কত্ত করেছিলেন। আর এই মহিলা কবাডি দলের অধিনায়ক সঙ্গীতা এখনো কোনো চাকরি পায় নি। আর এই অধিনায়ক সঙ্গীতার জীবনে রয়েছে আরও এক কঠিন লড়াই। সংসার চালাতে তিনি বেছে নিলেন ঠোঙা বানানোর কাজ। ঠোঙা বানিয়ে তিনি বহু কষ্টে তার সংসার চালাচ্ছেন।

আসলে আর সব বাচ্চার মতো ছোট থেকে তার জীবন সাধারণ ভাবে কাটেনি। ছোট বয়সেই তিনি তার বাবাকে হারিয়ে ফেলে যার ফলে সংসারের সমস্ত দায়িত্ব নিতে হয় তাকে। সংসার এর পুরো দায়িত্ব এসে পরে সঙ্গীতার ছোট্ট কাঁধে। সংসার এর হাল ধরতে ধরতে সঙ্গীতার সব স্বপ্ন অসমাপ্ত থেকে যায়। দিনরাত খেটে সংসার চালাতে হয় সঙ্গীতাকে। সোনাপুর এ আমন্ত্রিত এক সংসদ এর অনুষ্ঠানে কবাডি খেলায় পুরস্কার নিতে গিয়ে তিনি চোখের জল ধরে রাখতে পারেনি সঙ্গীতা। পুরস্কার নিতে গিয়ে অঝোরে কেঁদে ফেললেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

শীর্ষ সংবাদ

- Advertisement -

অন্য রকম