fbpx
Friday, July 23, 2021
Homeরাজ্যতৃণমূল থেকে বহিষ্কৃত তিন নেতা

তৃণমূল থেকে বহিষ্কৃত তিন নেতা

দুর্নীতির অভিযোগে জেরবার তৃণমূল নিজের ভাবমূর্তি স্বচ্ছ করতে পদক্ষেপ গ্রহণ শুরু করলো। দলে শুদ্ধিকরণ প্রক্রিয়া শুরু করে দলবিরোধী একাধিক অভিযোগে তিন নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার করল শাসকদল তৃণমূল। দক্ষিণ দিনাজপুরের বহিস্কৃতদের মধ্যে দু’জন দলের কার্যকরী সভাপতি শুভাশীষ ওরফে সোনা পাল ও দেবাশীষ মজুমদার ওরফে দেবা। আরেক জন দলের সাধারণ সম্পাদক সুনির্মলজ্যোতি বিশ্বাস ওরফে বুড়া।শুভাশীষ পাল ও দেবাশীষ মজুমদার দুইজনে যথাক্রমে জেলাপরিষদের মেন্টর ও সিডব্লিউসি’র চেয়ারম্যান ছিলেন। অন্যদিকে সুনির্মলজ্যোতি বিশ্বাস লোকসভার প্রাক্তন সাংসদ অর্পিতা ঘোষের প্রতিনিধি ছিলেন।

তবে এই বহিস্কারের ফলে প্রকাশ্যে এসেছে তৃণমূলের আভ্যন্তরীন কোন্দল এবং দুর্বল সাংগঠনিক অবস্থা। এ নিয়ে সোনা অবশ্য স্পষ্ট বলেন, ‘‘আমাদের ছাড়া জেলায় তৃণমূল চলবে না। আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের আদর্শে দল করি। এদের বহিষ্কার মানি না। বিষয়টা রাজ্য নেতৃত্বকে জানাব।’’ দেবাশিস ওরফে দেবা জানান, ‘‘আমাকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে বহিষ্কার করা হল। এখন যাঁরা জেলায় দল চালাচ্ছেন তাঁরা খাতায় কলমে তৃণমূলও নয়। আমি শো-কজ়ের জবাবেও লিখেছি, এঁদের নেতৃত্বে আমি দল করব না।’’ আর কুশমণ্ডির নেতা সুনির্মলের দাবি, ‘‘জেলা সভাপতি গৌতম দাসের নামে মানহানির মামলা করব।’’

সুনির্মলের স্ত্রী সুনন্দা বিশ্বাস আবার কুশমণ্ডি পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি। আর সোনার মেয়ে অলিভিয়া পাল মহিলা তৃণমূলের নেত্রী। তাঁদেরও কি বহিষ্কার করা হবে? এ বিষয়ে জেলা সভাপতি গৌতম দাসের বক্তব্য ‘‘ওঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ নেই। তাই তাঁরা যেমন আছেন থাকবেন।’’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

শীর্ষ সংবাদ

অন্য রকম