Home লাইফস্টাইল গর্ভবতী মায়ের নিজেকে ও তার শিশুকে সুস্থ রাখার জন্য কি কি করবেন

গর্ভবতী মায়ের নিজেকে ও তার শিশুকে সুস্থ রাখার জন্য কি কি করবেন

প্রতিটি মেয়ের জীবনে গর্ভবতী অবস্থা অর্থাৎ মা হওয়ার সময়টা ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। তাই গর্ভবতী মায়ের দরকার বিশেষ যত্নের। এই সময় সব বিষয়েই একটু বেশি সাবধানতা অবলম্বন করতে হয়। যাতে শিশু সুস্থ থাকে। গর্ভবতী অবস্থায় শিশু কিভাবে সুস্থ থাকবে তা মায়ের লক্ষ্য রাখতে হয় তাই গর্ভবতী মায়ের যা যা করা উচিত তা হলো।

1. গর্ভবতী মায়ের দরকার পুষ্টিকর খাবার খাওয়া। যেমন মাছ, মাংস,দুধ,ডিম, শাক সবজি এবং ফলের মধ্যে মৌসুমী ফল টা খাওয়া উচিত। আরও একটা কাজ করা উচিত তা হলো বাজার থেকে সবজি আনার পর তা প্রায় আধ ঘন্টা জলে ভিজিয়ে রেখে তারপর রান্না করা উচিত। এই সময় মা ও শিশু দুজনের সুস্থ থাকার জন্য প্রচুর পরিমান জল পান করা উচিত।

2. গর্ভবতী মায়ের বিশ্রাম নেওয়া উচিত এবং শোয়ার সময় কাত হয়ে শোয়া উচিত। দিনের বেলায় ৩ থাকে ৪ ঘন্টা ঘুমানো উচিত।

3. গর্ভবতী মায়ের একটু হাঁটাচলা করা উচিত এতে মা ও শিশু দুজনেই সুস্থ থাকবে। তবে বেশি পরিশ্রম করা অর্থাৎ ভারী কাজ করা একদম উচিত নয় । বেশি সিঁড়ি ভাঙা একদম উচিত নয়। উঁচু নিচু রাস্তায় যানবাহনে পরিবহন করা উচিত নয়। একটু সুন্দর মনোরম পরিবেশে যাওয়া উচিত যাতে গর্ভবতী মায়ের মন ভালো থাকে। ফুল বাগানে বসে থাকা উচিত তাতে মন ভালো থাকে।

4. গর্ভবতী মায়ের পরিষ্কার পরিছন্ন ভাবে থাকা উচিত। নিয়মিত স্নান করা উচিত। দাঁত মজা উচিত এবং দাঁত মাজার সময় একটু সাবধান হতে হবে। পরিষ্কার পরিছন্ন জামা কাপড় পড়া উচিত। হাত পায়ের নখ নিয়মিত কেটে ফেলা উচিত। জামা কাপড় পড়ার সময় একটু লক্ষ্য রাখতে হবে যাতে জামা ঢিলে থাকে।

5. গর্ভবতী মায়ের জন্য চিন্তা ,ভয় , মানসিক চাপ স্বাস্থ্যের পক্ষে ভীষণ ক্ষতিকর। গর্ভবতী মাকে সবসময় হাসি খুশি থাকতে হয়। মন ভালো থাকলে শরীরও ভালো থাকবে। স্বামীর সাথে সহবাসে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কোনোরকম ওষুধ খাওয়া একদম উচিত নয়। সবসময় ডাক্তারের সাথে পরামর্শ এর ওপর থাকতে হয়। শরীরে কোনো রকম অসুবিধা অনুভব করলে তৎক্ষণাৎ ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

শীর্ষ সংবাদ

- Advertisement -

অন্য রকম